বীমা করার নিয়ম জানুন - বীমা করার আগে কী বিষয় নিয়ে খেয়াল রাখতে +
ঢাকা 8:14 pm, Sunday, 16 June 2024

বীমা করার আগে কী বিষয় নিয়ে খেয়াল রাখতে হবে?

শুভ শাকিল
  • আপডেট সময় : 04:44:21 pm, Saturday, 8 April 2023 844 বার পড়া হয়েছে

বীমা করার নিয়ম জানুন

বীমা করার আগে কী বিষয় নিয়ে খেয়াল রাখতে হবে?

বাংলাদেশের ভেতরে  ১৯৭৩ সালে সাধারণ বীমা এবং  জীবন বীমা কর্পোরেশন প্রতিষ্ঠার মাধ্যমেই বীমা খাতের শুরু হলেও

আজই অর্থাৎ পয়লা মার্চ মাস প্রথমবারের মত জাতীয় বীমা দিবস হিসেবেই  পালন করা হচ্ছে। দেশের ভেতরে প্রায় পৌনে দুই

কোটি মানুষ আছে যারা বিভিন্ন ধরনের বীমার কম্পানি  আওতায় রয়েছেন, যদিও আছে অনেকে আছেন বীমা সম্পর্কে কোন ইতিবাচক ধারণা

পোষণ করেন না। তবেই সুধু অর্থনীতি বিশ্লেষকেরা বলেছেন, বীমা  ও একজন বিনিয়োগকারীর তাদের জীবনে ভবিষ্যতের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতেই পারে, একই সঙ্গেই তার ঝুঁকিও প্রাতিষ্ঠানিকভাবে ও ভাগাভাগি করেই নেয়া হয়। বীমা আসলে কী? ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যাংকিং অ্যান্ড ইনস্যুরেন্স এবং  বিভাগের পরিচালক অধ্যাপক হাসিনা শেখ বললেন, বীমা হল নির্দিষ্ট অর্থের বিনিময়ের জীবন এবং সম্পদ বা মা’লামা’লের সম্ভাব্য ক্ষয়’ক্ষতির ঝুঁ’কি কোন প্রতিষ্ঠানকেও স্থানান্তর করা। এর মাধ্যমেই ব্যক্তি এবং  বীমা প্রতিষ্ঠান অর্থের বিনিময়ের মক্কেলের আংশিক অথবা  সমস্ত সম্ভাব্য ঝুঁ’কি গ্রহণ করে থাকে। হাসিনা শেখ আরো বলেন, “বীমা হলো এক ধরনের বিনিয়োগ। এর মানেটা হচ্ছে আপনি ভবিষ্যতের অনিশ্চয়তার কথা ভেবেই এখন একটি নির্দিষ্ট অর্থ সেখানে জমা রাখছেন, নির্দিষ্ট মেয়াদের পর আপনি আপনার অর্থ আপনার হাতে পাবেন। এটা আপনার ঝুঁকি আরেকজনের সঙ্গে সেটা ভাগাভাগি করে নেয়ার মতো।”

ধরা যাক সুতরাং হেলথ ইনস্যুরেন্স অথবা স্বাস্থ্য বীমার কথা, যেখানেই নিজের এবং নিজের স্বাস্থ্য পরিস্থিতির বিপরীতে আপনি নির্দিষ্ট

অংকের কিছু টাকা  জমা করছেন, উদ্দেশ্যও হলো যদি আপনার কোন দুর্ঘ’টনা ঘটেই, তাহলে ঐযে বীমা প্রতিষ্ঠান আপনার

স্বাস্থ্য ব্যয়ের একটি অংশ অথবা  একটি বড় অংশ প্রদান করবে। এই যে নির্দিষ্ট পরিমাণ কিছু টাকা  আপনি জমা রাখছেন, একেই বলা হয় প্রিমিয়াম। অসুস্থ হলে অথবা  দুর্ঘটনা ঘটলে সাধারণত স্বাস্থ্য বীমা এবং তালিকাভুক্ত হাসপাতালগুলোতেই ‘ক্যাশলেস’ সেবায় অথবা সেবা গ্রহণ পরবর্তীকালে কালে

গ্রাহককে বীমার অর্থ প্রদান করার কথা।অধ্যাপক হাসিনা শেখ আরো বলেন, “সহজ কথায় বলতেই গেলে,

এটি ভবিষ্যতের সম্ভাব্য ক্ষ’তির হাত থেকেই নিজেকে সুরক্ষিত করার জন্য অর্থ প্রদানের মতোই।”

বাংলাদেশে কী ধরণের বীমা কম্পানি  চালু আছে?

জীবন এবং  বীমায় হলো একটি  একজন ও তাদের ব্যক্তি নিজের অথবা

পাশের পরিবারের কোন একজনকে সদস্যের জীবন এবং বীমা ও করাতে পারেন।

বীমা করার নিয়ম জানুন বীমা করার নিয়ম জানুন

 

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

বীমা করার আগে কী বিষয় নিয়ে খেয়াল রাখতে হবে?

আপডেট সময় : 04:44:21 pm, Saturday, 8 April 2023

বীমা করার আগে কী বিষয় নিয়ে খেয়াল রাখতে হবে?

বাংলাদেশের ভেতরে  ১৯৭৩ সালে সাধারণ বীমা এবং  জীবন বীমা কর্পোরেশন প্রতিষ্ঠার মাধ্যমেই বীমা খাতের শুরু হলেও

আজই অর্থাৎ পয়লা মার্চ মাস প্রথমবারের মত জাতীয় বীমা দিবস হিসেবেই  পালন করা হচ্ছে। দেশের ভেতরে প্রায় পৌনে দুই

কোটি মানুষ আছে যারা বিভিন্ন ধরনের বীমার কম্পানি  আওতায় রয়েছেন, যদিও আছে অনেকে আছেন বীমা সম্পর্কে কোন ইতিবাচক ধারণা

পোষণ করেন না। তবেই সুধু অর্থনীতি বিশ্লেষকেরা বলেছেন, বীমা  ও একজন বিনিয়োগকারীর তাদের জীবনে ভবিষ্যতের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতেই পারে, একই সঙ্গেই তার ঝুঁকিও প্রাতিষ্ঠানিকভাবে ও ভাগাভাগি করেই নেয়া হয়। বীমা আসলে কী? ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যাংকিং অ্যান্ড ইনস্যুরেন্স এবং  বিভাগের পরিচালক অধ্যাপক হাসিনা শেখ বললেন, বীমা হল নির্দিষ্ট অর্থের বিনিময়ের জীবন এবং সম্পদ বা মা’লামা’লের সম্ভাব্য ক্ষয়’ক্ষতির ঝুঁ’কি কোন প্রতিষ্ঠানকেও স্থানান্তর করা। এর মাধ্যমেই ব্যক্তি এবং  বীমা প্রতিষ্ঠান অর্থের বিনিময়ের মক্কেলের আংশিক অথবা  সমস্ত সম্ভাব্য ঝুঁ’কি গ্রহণ করে থাকে। হাসিনা শেখ আরো বলেন, “বীমা হলো এক ধরনের বিনিয়োগ। এর মানেটা হচ্ছে আপনি ভবিষ্যতের অনিশ্চয়তার কথা ভেবেই এখন একটি নির্দিষ্ট অর্থ সেখানে জমা রাখছেন, নির্দিষ্ট মেয়াদের পর আপনি আপনার অর্থ আপনার হাতে পাবেন। এটা আপনার ঝুঁকি আরেকজনের সঙ্গে সেটা ভাগাভাগি করে নেয়ার মতো।”

ধরা যাক সুতরাং হেলথ ইনস্যুরেন্স অথবা স্বাস্থ্য বীমার কথা, যেখানেই নিজের এবং নিজের স্বাস্থ্য পরিস্থিতির বিপরীতে আপনি নির্দিষ্ট

অংকের কিছু টাকা  জমা করছেন, উদ্দেশ্যও হলো যদি আপনার কোন দুর্ঘ’টনা ঘটেই, তাহলে ঐযে বীমা প্রতিষ্ঠান আপনার

স্বাস্থ্য ব্যয়ের একটি অংশ অথবা  একটি বড় অংশ প্রদান করবে। এই যে নির্দিষ্ট পরিমাণ কিছু টাকা  আপনি জমা রাখছেন, একেই বলা হয় প্রিমিয়াম। অসুস্থ হলে অথবা  দুর্ঘটনা ঘটলে সাধারণত স্বাস্থ্য বীমা এবং তালিকাভুক্ত হাসপাতালগুলোতেই ‘ক্যাশলেস’ সেবায় অথবা সেবা গ্রহণ পরবর্তীকালে কালে

গ্রাহককে বীমার অর্থ প্রদান করার কথা।অধ্যাপক হাসিনা শেখ আরো বলেন, “সহজ কথায় বলতেই গেলে,

এটি ভবিষ্যতের সম্ভাব্য ক্ষ’তির হাত থেকেই নিজেকে সুরক্ষিত করার জন্য অর্থ প্রদানের মতোই।”

বাংলাদেশে কী ধরণের বীমা কম্পানি  চালু আছে?

জীবন এবং  বীমায় হলো একটি  একজন ও তাদের ব্যক্তি নিজের অথবা

পাশের পরিবারের কোন একজনকে সদস্যের জীবন এবং বীমা ও করাতে পারেন।

বীমা করার নিয়ম জানুন বীমা করার নিয়ম জানুন